1. me@sottershondhanebangladesh.com : দৈনিক সত্যের সন্ধানে বাংলাদেশ : দৈনিক সত্যের সন্ধানে
  2. info@www.sottershondhanebangladesh.com : দৈনিক সত্যের সন্ধানে বাংলাদেশ :
শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০৪:৩২ অপরাহ্ন
সর্বশেষ :
বাকেরগঞ্জবাসীকে ঈদ শুভেচ্ছা জানালেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: সাইফুর রহমান তাহিরপুর সীমান্তে বসছে ধর্মীয় সম্প্রীতির মিলনমেলা, ৩ দিনব্যাপী দুই ধর্মের দুই উৎসব আজ থেকে শুরু সুনামগঞ্জের মইনপুরে মুদি দোকানীকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়, কোন ডাকাতির ঘটনা ঘটেনি রাণীশংকৈলে আবাদ তাকিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক ক্লাস বন্ধ রেখে পালন করলেন জন্মদিন রাণীশংকৈলে এসএসসি ‘৯২ ব্যাচ এসোসিয়েশন বন্ধুদের দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত রাণীশংকৈলে আইমান এন্টারপ্রাইজ’র পক্ষ থেকে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী রনজিৎ চৌধুরী উদ্যোগে ফতেপুর গ্রামে ইফতার ও দোয়া মাহফিল নবীগঞ্জে এডভোকেসি নেটওয়ার্ক কমিটির (এএনসি)ষান্মাসিক সভা অনুষ্ঠিত বাকেরগঞ্জ উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চান আলাল মল্লিক রাণীশংকৈলে কুখ্যাত মোটরসাইকেল চোর রাজ্জাক আবারও গ্রেফতার চোরের মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দিলেন জনতা

ভাগ্য বদলানোর স্বপ্ন দেখছেন কৃষকরা

জেলা প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত: সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০
  • ২২৬ বার পড়া হয়েছে

মাগুরায় দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে শসা চাষ। চলতি মৌসুমে মাগুরা জেলায় ৫০ হেক্টর জমিতে শসার চাষ হয়েছে। পানির ওপর মাচায় হলুদ-সাদা ফুল কিংবা থরে থরে ঝুলছে শসা। এমন দৃশ্যই দেখা যায় মাগুরার বিভিন্ন মাঠ ও খেত খামারে। এবার শসার আবাদও ভালো হয়েছে।

আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ফলনও ভালো। এতে হাসি ফুটেছে কৃষকের মুখে। শসার বীজ রোপণের ৩০ থেকে ৩৫ দিনের মধ্যে গাছে ফল ধরা শুরু হয়।

বিঘাপ্রতি খরচ হয় ১০ হাজার আর বিক্রি হয় ২০ হাজার টাকায়। লাভ বেশি হওয়ায় শসার চাষে আগ্রহী হচ্ছেন অনেকেই।

সদর উপজেলার ট্যাংগাখালী মাঠ ঘুরে দেখা যায়, শসার পরিচর্যায় ব্যস্ত কৃষকরা। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা পাইকারদের কাছে শসা বিক্রি নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন অনেক কৃষক। দূর-দূরান্ত থেকে আসা পাইকারদের কাছে প্রতি মণ শসা ১ হাজার ৩০০ থেকে ১ হাজার ৪০০ টাকা বিক্রি করছেন তারা।

শসা চাষি পারভেজ বলেন, এ মৌসুমে দুই একর জমিতে শসার আবাদ করেছেন, যাতে খরচ হয়েছে ৮০ হাজার টাকা। এতে বিক্রি হবে ২ লাখ টাকার বেশি। এবার আবহাওয়া ভালো। বাজারে শসার ভালো দাম পাওয়া যাচ্ছে।

গোমকোট গ্রামের শসা চাষি কামাল হোসেন বলেন, প্রায় দেড় একর জমিতে শসার আবাদ করেন তিনি। প্রথমবার অধিক বৃষ্টির ফলে অনেক গাছ মারা যায়। পরে আবার গাছ লাগাই। এখন ভালো অবস্থায় রয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যে শসা বিক্রি শুরু করব। কিন্তু কৃষি অফিসার বা তাদের অফিস থেকে কোনো সুযোগ পাইনি।

এ বিষয়ে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক সুশান্ত কুমার প্রামাণিক জানান, এ মৌসুমে মাগুরা জেলায় প্রায় ৫০ হেক্টর জমিতে শসার আবাদ করা হয়।

আবহাওয়া ভালো থাকায় বাজারে শসার ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। ভালো দামও পাচ্ছেন তারা। এছাড়া কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে কৃষকদের মধ্যে প্রয়োজনীয় বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে বলেও জানান এ কৃষি কর্মকর্তা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

পুরাতন সংবাদ পড়ুন

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত